দিনাজপুর বার্তা ২৪ | Dinajpur Barta 24

ব্রেকিং নিউজ
খানসামায় ছাত্রলীগের এক কমিটিই ১৫ বছর, নতুন কমিটি চায় পদপ্রত্যাশীরা
মোফাচ্ছিলুল মাজেদ সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯, ৯:৫৩ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে ৬৮৮ বার |

স্টাফ রিপোর্টার \ দিনাজপুরের খানসামা উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের এক বছর মেয়াদি কমিটি গত ১৫ বছর আগে মেয়াদ শেষ হলেও নতুন কমিটি গঠন করা হয়নি। মেয়াদ শেষ করা কমিটির বেশির ভাগ নেতা হারিয়েছেন ছাত্রত্ব। অনেকেই যোগ দিয়েছেন যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ বা আওয়ামী লীগে। পুরাতন কমিটির বেশির ভাগ নেতাকর্মীদের নেই তেমন কোন কার্যক্রমও। এমনকি ছাত্রলীগের কোন কার্যক্রমেও উপস্থিতি নেই এসব নেতাদের। দু’একজন নেতা ছাত্রলীগের হাল ধরে থাকলেও বাকিদের কোন খোঁজই নেই।
ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, ২০০৩ সালে খানসামা উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল। এতে তৎকালীন খানসামা ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী এরশাদ জামান সভাপতি এবং পাকেরহাট সরকারি কলেজের (তৎকালিন ডিগ্রি কলেজ) রেজাউল করিম রেজাকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করা হয়।
এক বছর মেয়াদি সেই কমিটি অতিক্রম করেছে ১৫ বছর। বিগত ২০১০ সালে খানসামা উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি হওয়ার জোর তৎবির করা হলেও কমিটি হয়নি। এরপর এভাবেই কেটে যায় আরো কয়েক বছর। তবে বর্তমানে নতুন কমিটির জন্য খানসামা উপজেলা ছাত্রলীগের অনেক পদপ্রত্যাশীরা দৌড়ঝাপ করছেন।
উপজেলা ছাত্রলীগের পদপ্রত্যাশী এবং খানসামা উপজেলা ছাত্রলীগের আহŸায়ক কমিটির সদস্য রাকেশ গুহ বলেন, ‘আমরা বঙ্গবন্ধুর এবং শেখ হাসিনার ছাত্রলীগ করি। ছাত্রলীগের দুর্দিনে পাশে ছিলাম। সামনের দিন গুলোতেও ছাত্রলীগের সঙ্গে আছি এবং থাকব। আশা করি দায়িত্বশীলরা যাদেরকে ভালো মনে করবেন তারাই উপজেলা ছাত্রলীগের পদ পাবেন।’
ছাত্রলীগের আরেক পদপ্রত্যাশী মো. মোছাব্বের আলম বলেন, ‘আমি জন্মগতভাবেই রাজনৈতি পরিবারের ছেলে। ছাত্রলীগে রাজনীতির সাথে এক যুগের বেশি সময় ধরে আছি। আশা করি খানসামায় মাদকমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত এবং ত্যাগী নেতারাই ছাত্রলীগের হাল ধরবে।’
ছাত্রলীগ নেতা লিটন রহমান লিটু বলেন, ‘আমার বাপ দাদারা আওয়ামী লীগ করে আসছে। আমিও দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রলীগের সাথে জড়িত। ছাত্রলীগকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য এবং সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বর্তমান অর্থ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সাথেও আমি ছিলাম, আছি থাকব। আশা করি ত্যাগী নেতারাই পদে আসবে।
সোনারগাঁও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মোস্তাওফিক আহমেদ শামীম বলেন, ‘আওয়ামী লীগের দুর্দিনে আমার পরিবার ও আমি আওয়ামী লীগের সাথে ছিলাম। আমার বাবা উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য। সুতরাং ছাত্রলীগে যাতে যোগ্য, ত্যাগী, সংগঠনমনা ছেলেরাই পদ পায় এই আশাই করব।’
তবে এতদিনেও কমিটি না হওয়ার বিষয়ে খানসামা উপজেলা ছাত্রলীগের আহŸায়ক রেজাউল করিম রেজা বলেন, ‘আমি চেয়েছিলাম ছাত্রলীগের কমিটি দিতে। কিন্তু ২০১৪ সালে আন্দোলন এবং তারপর জাতীয় নির্বাচনের জন্য ছাত্রলীগের কমিটি হয়নি। তবে বর্তমানে একটি সফল সম্মেলন ও এমপি মহোদয় এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের সাথে পরামর্শ ও তারা সময় দিলেই কমিটি হবে।’
ছাত্রলীগের কমিটিতে পদপ্রত্যাশী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবু নাসের সরকার বলেন, ‘দেশের যেকোন ক্রান্তিকালে ছাত্রলীগের ব্যাপক ভূমিকা থাকে। আমি চাই উপজেলায় ছাত্রলীগের কমিটিতে শিক্ষিত, মার্জিত, সংগঠন প্রিয় এবং যাদের লোভ নেই তারাই যেন ছাত্রলীগের পদে আসীন হয়।’
ছাত্রলীগের আরেক পদপ্রত্যাশী আসাদুজ্জামান সুমন বলেন, ‘আওয়ামী লীগের দুর্দিনে নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাজপথে ছিলাম। পরিবারের সবাই আওয়ামী লীগের সাথে জড়িত থাকায় আমিও বংশানুক্রমিকভাবে ছাত্রলীগ করি। আশা করি কমিটিতে ত্যাগী, যোগ্য ছেলেই পদ পাবে।’
ছাত্রলীগের পদপত্যাশী আবু হেনা বলেন, ‘আওয়ামী, ছাত্রলীগের দুর্দিনে পাশে ছিলাম। এখনও আছি। আগামীতেও থাকব। তবে যারাই পদে আসবে তারা যেন পরীক্ষিত নেতা হয়। হাইব্রিড জাতীয় নেতা আমরা চাই না। এতে আমি পোস্ট পাই বা না পাই সেটা পরের বিষয়।’
কমিটির বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ইমতিয়াজ ইনান দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘জেলায় যেসব মেয়াদর্ত্তীন ছাত্রলীগের কমিটি আছে আমরা সেগুলোকে পূর্নগঠন করার চেষ্টা করি। এজন্য আমি স্থানীয় এমপি ও আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল লোকদের সাথে কথাও বলেছি। খানসামা উপজেলা ছাত্রলীগের আহŸায়ক বাদে সবাই পদত্যাগ করেছে।
ছাত্রলীগের প্রার্থীতার বিষয়ে তিনি বলেন, শিক্ষিত, মার্জিত, মাদকমুক্ত, রানিং ছাত্র, সংগঠনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল ছেলেকেই ছাত্রলীগের বিভিন্ন পদে আনা হবে।’
এ বিষয়ে খানসামা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সফিউল আযম চৌধুরী লায়ন বলেন, ‘ছাত্রলীগ হলো আওয়ামী লীগের একটি অঙ্গ সংগঠন। ছাত্রলীগে তারা নিজেদের মত করেই কমিটি করবে। তবে আমরাও দেখব ছাত্রলীগে যেনো কোনভাবেই রাজাকারের সন্তান, জামায়াত-বিএনপির হাইব্রিড ছেলে পদপদবী না পায়।’

এই পাতার আরো খবর -
৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
দিনাজপুর, বাংলাদেশ
ওয়াক্তসময়
সুবহে সাদিকভোর ৪:৪৩ পূর্বাহ্ণ
সূর্যোদয়ভোর ৫:৫৯ পূর্বাহ্ণ
যোহরদুপুর ১১:৫৪ পূর্বাহ্ণ
আছরবিকাল ৪:০৯ অপরাহ্ণ
মাগরিবসন্ধ্যা ৫:৪৮ অপরাহ্ণ
এশা রাত ৭:০৫ অপরাহ্ণ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকীয়