দিনাজপুর বার্তা ২৪ | Dinajpur Barta 24

ব্রেকিং নিউজ
ব্যর্থ স্বাস্থ্যসেবা বিলের জন্য ডেমোক্র্যাটদের দুষলেন ট্রাম্প
মোফাচ্ছিলুল মাজেদ মার্চ ২৫, ২০১৭, ৩:৪১ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে ৫০৬ বার |

দিনাজপুর বার্তা২৪ ডেক্স‹: নিজের স্বাস্থ্যসেবা বিলের ব্যর্থতার জন্য ডেমোক্র্যাটদের দায়ী করছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের ভোটাভুটিতে হারের শঙ্কায় বিলটি প্রত্যাহার করে নেন ট্রাম্প।

বিবিসি জানিয়েছে, এ বিষয়ে ট্রাম্প ওয়াশিংটন পোস্টকে বলেন, “আমরা ডেমোক্র্যাটদের একটি ভোটও পেতাম না, আমাদের মধ্যেও কিছুটা কুণ্ঠা ছিল, যা এখনও কিছুটা রয়ে গেছে, তাই আমরা এটি প্রত্যাহার করেছি। শেষ মুহূর্তে নেওয়া প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তটিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের জন্য বড় ধরনের বিপর্যয় বলে বিবেচনা করা হচ্ছে। ওবামাকেয়ার নামে পরিচিত স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচি বাতিল ও তার পরিবর্তে আরেকটি কর্মসূচি চালু করা ট্রাম্পের অন্যতম নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল। এ কারণেই ‘ওবামাকেয়ার’বাতিল করে নতুন ‘দ্য আমেরিকান হেলথ কেয়ার বিল’আনা হয়েছিল কংগ্রেসে। কিন্তু ট্রাম্পের নতুন এই বিলটির পক্ষে রিপাবলিকানদের নূন্যতম ২১৫টি ভোট না পাওয়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছিল। এই পরিস্থিতিতে স্পিকার পল রায়ান জানান, তিনি এবং প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বিলটি প্রত্যাহ্যারের বিষয়ে একমত হয়েছেন। বর্তমানে কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদ ও সিনেট, উভয় কক্ষে রিপাবলিকানদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। বিভিন্ন প্রতিবেদনে আভাস পাওয়া গেছে, ২৮ থেকে ৩৫ জন রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আমেরিকান হেলথ কেয়ার অ্যাক্ট প্রস্তাবটির বিরোধিতা করেছিলেন। বলা হচ্ছে, এদের মধ্যে বিলটিতে হেলথ কভারেজ কঠোরভাবে কাটছাঁট করা নিয়ে অসন্তুষ্ট ছিলেন কয়েকজন, অন্যরা বিলটিতে আনা পরিবর্তন যথেষ্ট হয়নি বলে অনুভব করছিলেন। সাম্প্রতিক এক জরিপেও আভাস পাওয়া গিয়েছিল, বিলটি জনপ্রিয়তা পাবে না, জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে মাত্র ১৭ শতাংশ বিলটির প্রতি সমর্থন জানিয়েছিলেন।

বিশ্লেষকদের মতে, গত শুক্রবার দিনটি রিপাবলিকানদের জন্য শুধু খারাপ ছিল না, একটি বিপর্যয়কর দিন ছিল।

এই পাতার আরো খবর -
৮ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
দিনাজপুর, বাংলাদেশ
ওয়াক্তসময়
সুবহে সাদিকভোর ৪:৪৪ পূর্বাহ্ণ
সূর্যোদয়ভোর ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
যোহরদুপুর ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ
আছরবিকাল ৪:০৭ অপরাহ্ণ
মাগরিবসন্ধ্যা ৫:৪৬ অপরাহ্ণ
এশা রাত ৭:০২ অপরাহ্ণ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকীয়