দিনাজপুর বার্তা ২৪ | Dinajpur Barta 24

ব্রেকিং নিউজ
গণমাধ্যমকর্মীদের চাকরির সুরক্ষা নিশ্চিত করা হবে: তথ্যমন্ত্রী
মোফাচ্ছিলুল মাজেদ মার্চ ৬, ২০২০, ১০:৩৬ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে ৩৩৪ বার |

দিনাজপুর বার্তা২৪.কম :- তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, গণমাধ্যমকর্মী আইন আগামী সংসদ অধিবেশনে নেওয়া হবে। তিনি বলেন, আমরা আশা করি, গণমাধ্যমকর্মীদের চাকরির সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারবো। শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টার আয়োজিত দ্বিতীয় স¤প্রচার সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান। তথ্যমন্ত্রী বলেন, এই পেশার সঙ্গে যারা যুক্ত আছেন, তাদের চাকরির সুরক্ষা প্রয়োজন। আমরা চেষ্টা করবো খুব শিগগিরই গণমাধ্যমকর্মী আইন মন্ত্রিসভায় উপস্থাপনের জন্য। আগামী সংসদ অধিবেশনে সেটি নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করবো। গণমাধ্যমকর্মী আইন যখন চ‚ড়ান্ত হবে, তখন গণমাধ্যমকর্মীদের চাকরি আইনগতভাবে সুরক্ষা দেওয়া সম্ভব হবে। এই ক্ষেত্রে আমি আপনাদের সহযোগিতা চাই। স¤প্রচার আইন নিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, স¤প্রচার আইন দেড় বছর আগে আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছিল। স¤প্রতি আইন মন্ত্রণালয় এটির ভেটিংয়ের কাজ শুরু করেছে। আমরা আশা করছি, দ্রুত ভেটিং হয়ে আমাদের কাছে পৌঁছে যাবে। আপনারা জানেন – স¤প্রচার নীতিমালা রয়েছে, এটি আইনে পরিণত হবে। হাছান মাহমুদ বলেন, আমরা আশা করি, গণমাধ্যমকর্মীদের চাকরির সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারবো। তবে এ ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের মালিকপক্ষকে অনেক বেশি তৎপর হতে হবে। ১০ বছর ধরে চাকরি করছেন, হঠৎ সে জানলো তার চাকরি নেই। এটি গণতন্ত্রের পরিপন্থী, মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী। এটি কোনোভাবে কাম্য নয়। আমি আশা করি, আইন দুটো পাস হলে এটি করা সম্ভব হবে না। আমি আরও আশা করবো, এ ধরনের ঘটনা যেনো না হয়। ক্যাবল অপারেটররা ডিজিটাল স¤প্রচারে না গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ডিজিটাল হয়েছে। কিন্তু দুঃখজনক, স¤প্রচার মাধ্যম এখনও ডিজিটাল হয়নি। ক্যাবল অপারেটর সিস্টেমে ডিজিটালাইজড হয়নি। যখন আমি ডিজিটাল করতে বলি, তখন তারা নানা দাবি করেন। এ বছরের জুনের মধ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রামে ডিজিটালাইজড করার কথা থাকলেও তা হয়নি। এ ক্ষেত্রে যদি সরকারকে কঠোর হতে হয়, তাহলে কঠোর হবো। যারা পারবেন তাদের সুযোগ দেওয়া হবে, আর যারা পারবেন না তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিজ্ঞাপন সংক্রান্ত নতুন বিধান আসছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিদেশি শিল্পী দিয়ে বিজ্ঞাপন তৈরি করলে অনেক বেশি ট্যাক্স দিতে হবে। তিনি বলেন, শুধু শিল্পী নয়, যারা তৈরি করবেন, তাদেরও বেশি ট্যাক্স দিতে হবে। তথ্যমন্ত্রী বলেন, আগে দেশের পণ্যের বিজ্ঞাপনগুলো বিদেশে চলে যেতো, আমরা সেটি বন্ধ করেছি। এখন অন্তত বাংলাদেশি পণ্যের বিজ্ঞাপন বিদেশি চ্যানেলে প্রচার হয় না। একটি-দুটি বিজ্ঞাপন হয়, তারা কিন্তু সেই দেশে নিবন্ধিত। এ ক্ষেত্রে কোনও ধরনের বিজ্ঞাপনই বিদেশি চ্যানেল প্রচার করতে পারে না। আমরা এটিতে কড়াকড়ি আরোপের চেষ্টা করেছি। কিন্তু কারিগরি কিছু ত্রুটির কারণে সম্ভব হচ্ছে না। ক্যাবল অপারেটর ডিজিটাল না হলে এটি রোধ সম্ভব হবে না। আমরা এ ক্ষেত্রে একটি সময়সীমা নির্ধারণ করে দিয়ে পুরোপুরি বাস্তবায়ন করতে চাই। তিনি বলেন, আমাদের দেশের ছেলেমেয়েরা যারা অভিনয় করেন, বিজ্ঞাপনে অভিনয় করেন, তারা অনেক স্মার্ট। কিন্তু আমরা দেখতে পাই – বাংলাদেশি পণ্যের বিজ্ঞাপন বিদেশ থেকে দ্বিতীয় মানের শিল্পী দিয়ে তৈরি করে আনা হয়। ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আমরা একটি বিধান করতে যাচ্ছি, আলোচনা করেছি। মুক্তবাজার অর্থনীতিতে যে কেউ যে কাউকে দিয়ে বিজ্ঞাপন বানিয়ে আনতে পারেন। অভিনেতা ও অভিনেত্রীদের দিয়ে বিজ্ঞাপন বানিয়ে আনতে পারেন, কিন্তু এ ক্ষেত্রে অনেক বেশি ট্যাক্স দিতে হবে। শুধু যিনি বিজ্ঞাপনচিত্রে অভিনয় করবেন তাকেই নয়, যিনি বিজ্ঞাপন বানাবেন তাকেও ট্যাক্স দিতে হবে। যিনি প্রদর্শন করবেন তাকেও ট্যাক্স দিতে হবে। আমি এনবিআরের সঙ্গে কথা বলেছি, অর্থমন্ত্রীকেও বিষয়টি জানিয়েছি। এটি হলে আমাদের দেশের কলাকুশলী ও শিল্পের সুরক্ষা হবে। তথ্যমন্ত্রী প্রশ্ন রেখে বলেন, একটি বাচ্চা ছেলের বিজ্ঞাপনও কি বিদেশ থেকে বানিয়ে আনতে হয়? এ ক্ষেত্রে আমরা কড়াকড়ি করতে যাচ্ছি। দেশের শিল্পকে সুরক্ষা দিতে এটি করতে যাচ্ছি। স¤প্রচার সম্মেলনে ‘নীতি সংলাপ-কর্মী সুরক্ষা’ শীর্ষক সূচনা পর্বে বিজেসি সভাপতি রেজওয়ানুল হক রাজার সভাপতিত্বে ও সদস্য-সচিব শাকিল আহমেদের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, ঢাকায় নিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার জাভেদ প্যাটেল ও বিজেসি’র উপদেষ্টা একাত্তর টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল হক বাবু।

এই পাতার আরো খবর -
৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
দিনাজপুর, বাংলাদেশ
ওয়াক্তসময়
সুবহে সাদিকভোর ৪:৪০ পূর্বাহ্ণ
সূর্যোদয়ভোর ৫:৫৭ পূর্বাহ্ণ
যোহরদুপুর ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ
আছরবিকাল ৪:১৪ অপরাহ্ণ
মাগরিবসন্ধ্যা ৫:৫৫ অপরাহ্ণ
এশা রাত ৭:১১ অপরাহ্ণ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকীয়