৬০০ কোটি ডলার বরাদ্দ পাচ্ছে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশন - দিনাজপুর বার্তা ২৪ | Dinajpur Barta 24

দিনাজপুর বার্তা ২৪ | Dinajpur Barta 24

ব্রেকিং নিউজ
৬০০ কোটি ডলার বরাদ্দ পাচ্ছে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশন
দিনাজপুর বার্তা জুলাই ১, ২০২১, ৩:১৪ পূর্বাহ্ণ | পড়া হয়েছে ৮১ বার |

দিনাজপুর বার্তা ২৪.কম ডেস্ক ॥ জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রগুলো সংস্থাটির ১২টি শান্তিরক্ষা মিশনের আগামী বছরের জন্য প্রায় ৬০০ কোটি ডলার বাজেটে সম্মত হয়েছে। মঙ্গলবার জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের বাজেট কমিটি ২০২২ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত ব্যয়ের জন্য এই বরাদ্দে সম্মত হয়। বুধবার সাধারণ পরিষদ আনুষ্ঠানিকভাবে এই বাজেট অনুমোদন দেবে। কূটনীতিকরা বলছেন, এই বাজেট বরাদ্দের মধ্য দিয়ে শান্তিরক্ষা মিশনের সম্ভাব্য বন্ধ হয়ে যাওয়া অল্পের জন্য রক্ষা পেলো। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে। জাতিসংঘের শীর্ষ কর্মকর্তারা সোমবার জানান, বিভিন্ন শান্তিরক্ষা মিশনকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল ৩০ জুনের মধ্যে নতুন বাজেট গ্রহণ করা না হলে জরুরি পরিকল্পনা করার প্রস্তুতি নিতে। কয়েকজন কূটনীতিক জানান, আলোচনা প্রক্রিয়ায় পরিবর্তন, লজিস্টিকস নিয়ে বিরোধ এবং চীনের বিরুদ্ধে পশ্চিমাদের কঠোর অবস্থানের বাজেট বরাদ্দে সমঝোতা বিলম্বিত হওয়ার হুমকি তৈরি হয়েছিল। ইউরোপীয় ইউনিয়নের কূটনীতিক থিবাউল্ট কামেলি মঙ্গলবার বাজেট কমিটিকে বলেন, সময়সীমার প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা জানানোর ক্ষেত্রে অক্ষমতা পুরো শান্তিরক্ষা কাঠামোকে নজিরবিহীন বিপদের মুখে ফেলেছিল। শান্তিরক্ষায় মাঠে কাজ করা নারী ও পুরুষরা আমাদের কাছে আগামী ও ভবিষ্যতের আলোচনা ও কাজ সময়মতো সম্পন্ন করার দাবি রাখে। জাতিসংঘের ব্যবস্থাপনা কৌশল, নীতি ও কমপ্লায়েন্স-বিষয়ক প্রধান ক্যাথেরিন পোলার্ড সোমবার সাংবাদিকদের বলেছিলেন, যদি ৩০ জুনের মধ্যে বাজেট বরাদ্দ দেওয়া না হয় তাহলে শুধু সংস্থার সম্পদ এবং কর্মী ও শান্তিরক্ষীদের নিরাপত্তার জন্য অর্থ ব্যয় করতে পারবেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস। শান্তিরক্ষা মিশনের বাজেটের সবচেয়ে বড় দাতা যুক্তরাষ্ট্র (২৮%)। এরপরে রয়েছে চীন (১৫.২ শতাংশ) ও জাপান (৮.৫%)।

এই পাতার আরো খবর -
২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
দিনাজপুর, বাংলাদেশ
ওয়াক্তসময়
সুবহে সাদিকভোর ৪:৩৯ পূর্বাহ্ণ
সূর্যোদয়ভোর ৫:৫৬ পূর্বাহ্ণ
যোহরদুপুর ১১:৫৭ পূর্বাহ্ণ
আছরবিকাল ৪:১৭ অপরাহ্ণ
মাগরিবসন্ধ্যা ৫:৫৮ অপরাহ্ণ
এশা রাত ৭:১৪ অপরাহ্ণ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকীয়